বিশ্বাসঘাতকের পদধ্বনি – আরিফ মঈনুদ্দীন

সম্পাদনা/লেখক: আব্দুল্লাহ আল মামুন

অবিস্মরণীয় আনন্দ-বাধ্য খইয়ের মতো ফুটতে ফুটতে
এক সময় স্থিত হয়। জনান্তিকে কেউ-একজন বলে ওঠে,
বিশ্বাসঘাতকের পদধ্বনি ওই শোনা যায়’
এই আপ্তবাক্যকে পাত্তা না দিয়ে জনকের তর্জনী বাতাসে লিখে
দিলেন এই বঙ্গে কে আমাকে বুক থেকে ঠেলে দেবে?
তোরা সব জয়ধ্বনি কর
অনন্তকালের জয়ধ্বনি;
একটি দেশ পেয়েছি
তাকে এক-জীবন আদরে ভরিয়ে দেবো
শিশুর প্রতি স্নেহের মতো
প্রকৃতির নিখাদ মমতার মতো

অতঃপর রাত্রিকে আলিঙ্গন করে সব দুঃখ-ব্যথা-বেদনা ভুলে
শঙ্কাহীন এক বিছানায় শুয়ে পড়ে বাংলাদেশ
শান্ত সমাহিত এক জনপদ পাখির ডাকের নিশ্চিন্ত অপেক্ষায় থেকে
যখন বন্দুকের ডাকে জেগে উঠলোকী চমৎকার
এক স্বপ্নের করুণ মৃত্যু তাকে হামাগুড়ি দিয়ে বুকে তুলে নিল

বিশ্বাস ভঙ্গের আহাজারি বাতাসে মিলিয়ে যেতে যেতে
বলে গেলো শেষ কথা
পলাশীর আম্রকাননে যে জারজ ভ্রূণ রোপিত ছিল
তাহাই হঠাৎ বৃক্ষ হয়ে হেঁটে এলো ধানমন্ডির বত্রিশ নম্বরে,
মনের জ্বালা মিটিয়ে আবারও বিশ্বাসঘাতক অভিধায় চুমু দিয়ে
রক্তের ভাষায় বলে গেলোপিতার নাম
মীর জাফর আলী খান
অন্ধকার সাকিন তার
পেশায় বেইমান।

সময়ের আলো, ২০ মার্চ, ২০২০ লিঙ্ক

আরও পড়ুন