তরুণদের ভাবনায় বঙ্গবন্ধু

সম্পাদনা/লেখক: আব্দুল্লাহ আল মামুন

বাঙালি জাতির মাথার ওপরকার আকাশ জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। বঙ্গবন্ধু মানেই বাংলাদেশ। এই মহান নেতাকে নিয়ে শুভসংঘের তরুণ বন্ধুদের ভাবনাগুলো তুলে ধরেছেন জাকারিয়া জামান

 

শামীম আল মামুন
সাধারণ সম্পাদক
শুভসংঘ কেন্দ্রীয় কমিটি

বাঙালির প্রতি বঙ্গবন্ধুর ছিল অবিচল আস্থা, অগাধ বিশ্বাস আর ভালোবাসা। এ জন্যই তিনি শোষণ, বঞ্চনা ও পরাধীনতার শিকল ভেঙে মুক্তির স্বাদ এনে দিতে পেরেছেন। আঙুলের ইশারায় পুরো জাতিকে এক করে বজ্রকণ্ঠের ঘোষণায় ছিনিয়ে আনলেন স্বাধীনতা। এরপর শুরু করলেন তাঁর স্বপ্নের সোনার বাংলা বিনির্মাণ। তাঁর দৃঢ় নেতৃত্ব ও সাহসী পদক্ষেপে অতি অল্প সময়ে যুদ্ধবিধ্বস্ত বাংলাদেশ মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে শুরু করেছিল। জাতির পিতার আদর্শ, দর্শন ও কর্মচিন্তা আমাদের চলার পথের পাথেয়। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নই সুখী-সমৃদ্ধ বাংলাদেশের প্রতিচ্ছবি।

 

আয়েশা তাইয়্যেবা এপা
যুগ্ম সম্পাদক
শুভসংঘ কেন্দ্রীয় কমিটি

‘স্বাধীনতা তুমি আছ বলে আজও গোলাপ চামেলি ফোটে’। পৃথিবী সৃষ্টির পর থেকে আজ অবধি যুগে যুগে এমন সব ব্যক্তিত্বের আগমন ঘটেছে, যাঁদের হাত ধরে রচিত হয়েছে মানবতার মুক্তির সনদ। তেমনই এক মুক্তির কারিগর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। যাঁর হাত ধরে আমরা পেয়েছি মুক্তির সুখ। আমার চোখে বঙ্গবন্ধু মানে আদর্শ। বাঙালিকে, তরুণ প্রজন্মকে উদ্দীপিত করছে তাঁর গৌরবোজ্জ্বল ইতিহাস। বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ একে অপরের পরিপূরক। তাই বারবারই মনে হয় ‘যদি রাত পোহালে শোনা যেত, বঙ্গবন্ধু মরে নাই’।

 

রোবেল পারভেজ
সাহিত্য সম্পাদক
শুভসংঘ কেন্দ্রীয় কমিটি

যখন একটি জাতির জীবনীশক্তি নিঃশেষ হয়ে যাচ্ছিল শোষণ-বঞ্চনার জাঁতাকলে, তখন আলোর দিশারি হয়ে এলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। মানুষের প্রতি মমত্ববোধের জন্য খোকা থেকে হলেন বঙ্গবন্ধু। পুরো জাতিকে স্বাধীনতার বীজমন্ত্র শোনালেন। ঘোষণা করলেন, ‘রক্ত যখন দিয়েছি, রক্ত আরো দেব।’ আরো বললেন, ‘এবারের সংগ্রাম আমাদের মুক্তির সংগ্রাম।’ তখন তাঁর আঙুলে জাগে সাত কোটি মানুষের আশা-আকাঙ্ক্ষার মানচিত্র। অন্ধকারে নিমজ্জিত জাতিকে এনে দিলেন স্বাধীনতার রক্তিম সূর্য।

 

ইসতিয়াক আহমেদ জাহিন
কর্ম ও পরিকল্পনা সম্পাদক
শুভসংঘ কেন্দ্রীয় কমিটি

বঙ্গবন্ধু বললেই চোখের সামনে একটি দেশ, আর বাংলাদেশ বললেই বঙ্গবন্ধুর ছবি ভেসে ওঠে। তাঁর রাজনৈতিক মেধা, প্রজ্ঞা ও নির্দেশনায় আমরা পেয়েছি একটি স্বাধীন-সার্বভৌম দেশ। তরুণসমাজের কাছে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান অনুপ্রেরণার নাম। তরুণদের কাছে তিনি একাধারে একজন উদার ব্যক্তিত্ব, সফল রাজনীতিবিদ ও অন্যায়ের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের মূর্ত প্রতীক। তারুণ্যের শক্তির প্রতি আস্থা রাখতেন তিনি। তরুণ প্রজন্মকেই শপথ নিতে হবে এই মহান নেতার নীতি ও আদর্শ ধারণ করে স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ে তোলার।

 

লতা সরকার
সাংস্কৃতিক সম্পাদক
গাইবান্ধা জেলা শুভসংঘ

তরুণদের ভাবনায় সারাক্ষণ যাঁর বিচরণ তিনি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। বঙ্গবন্ধু বেঁচে আছেন বাংলার প্রত্যেক মানুষের হৃদয়ে। পাঠ্যপুস্তকে, শিক্ষকের মুখে কিংবা চাঁদের আলোয় পারিবারিক গল্পের আসরে বঙ্গবন্ধু উদ্দীপ্ত করেন আমার মতো তরুণদের। লড়তে শেখায় অন্যায়ের বিরুদ্ধে। তরুণদের ভাবনায় বঙ্গবন্ধু মহানায়ক হয়ে আছেন, যাঁর জাদুর কাঠিতে বাংলা হয়েছে সোনাফলা দেশ। জনগণের স্বাধিকার প্রতিষ্ঠায় নতুন প্রজন্মের কাছে মহাপুরুষ বঙ্গবন্ধু। তিনি থাকবেন বাঙালির হৃদয়ে, অস্তিত্বে আর চেতনার অস্থিমজ্জায়।

 

ভিভিয়ান ঘোষ
সাধারণ সম্পাদক
চাঁদপুর জেলা শুভসংঘ

পৃথিবীতে কেউ জন্মগতভাবে মহান, কেউ মহত্ত্বের লক্ষণ নিয়ে জন্মগ্রহণ করেন, আবার কেউ নিজ চেষ্টায় মহানুভবতা অর্জন করেন। বঙ্গবন্ধু ইতিহাস সৃষ্টি করেছেন। বিশ্ব মানচিত্রে এঁকেছেন বাংলাদেশের নাম। শোষিত, বঞ্চিত, নিপীড়িত, নির্যাতিত জনতার মুক্তির ইতিহাসে এক কিংবদন্তি। অধিকার আদায়ে সোচ্চার হওয়া, ভ্রাতৃত্ববোধের মর্মবাণী, দেশরক্ষার জন্য নিজেকে উৎসর্গ করার শিক্ষা আমরা বঙ্গবন্ধুর আদর্শ থেকেই পাই। বঙ্গবন্ধুর পথচলা তরুণদের উৎসাহিত করে অসাম্প্রদায়িকতা ও দুর্নীতিমুক্ত মানুষ হিসেবে নিজেদের গড়তে।

 

এ বি এম ইকবাল হায়দার
সাধারণ সম্পাদক
বৃহত্তর চট্টগ্রাম শুভসংঘ

বঙ্গবন্ধু মানেই শক্তি, উৎসাহ আর প্রেরণা। বঙ্গবন্ধু মানেই বাংলাদেশ। তাঁর অসাধারণ বাগ্মিতা, মানবিকতা, মানুষের প্রতি সহমর্মিতার গুণেই তিনি চির অমলিন। তাঁর ৭ই মার্চের ভাষণ আমাদের শিহরিত করে, অনুপ্রাণিত করে। তাঁর উদার রাজনৈতিক দৃষ্টিভঙ্গি ও শোষণহীন সমাজ গড়ার প্রত্যয় আমাদের উজ্জীবিত করে। স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উদ্যাপনের সন্ধিক্ষণে দাঁড়িয়ে আমরা জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আর্দশ হৃদয়ে ধারণ করে সামনের দিকে এগিয়ে যেতে চাই।

 

তাহমিনা আক্তার
সিনিয়র সহসভাপতি
জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শুভসংঘ

প্রতিটি জাতির পথের দিশারি হিসেবে জন্ম হয় একজন নেতার। বাংলাদেশ নামের রাষ্ট্রটির পথের দিশারি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। তিনি এক মহানায়ক এবং মানবতাবাদী দেশপ্রেমিক। বাংলার তরুণদের আদর্শ তিনি। জীবনের শেষ রক্তবিন্দু দিয়ে বঙ্গবন্ধু রাঙিয়ে গেছেন আমাদের ইতিহাস।

প্রদীপ্ত শিখা জ্বালিয়ে নতুন পথের সন্ধান দিতে আজীবন লড়ে গেছেন এই অবিসংবাদিত নেতা। যারা আগামীর স্বপ্নদ্রষ্টা, তারা বঙ্গবন্ধুর রাজনৈতিক আদর্শ মনেপ্রাণে ধারণ করলে স্বপ্নের সোনার বাংলাদেশ গড়া সম্ভব।

 

 

শম্পা আফরিন
সাধারণ সম্পাদক
কুষ্টিয়া জেলা শাখা

বঙ্গবন্ধু মানে তরুণ প্রজন্মের কাছে সম্ভাবনাময় এক আদর্শের নাম। সেই টুঙ্গিপাড়ার ছোট্ট খোকা আজ বাঙালি জাতির মননে-মগজে।

তাঁর অবিস্মরণীয় নেতৃত্বের কারণেই আজ আমরা স্বাধীন জাতি। ১৯৭১ সালের ৭ই মার্চ সম্মোহনী এই নেতার কালজয়ী ভাষণের মাধ্যমে বাঙালি নিরস্ত্র থেকে সশস্ত্র জাতিতে পরিণত হয়েছিল।

৯ মাসে ছিনিয়ে এনেছিল স্বাধীনতার লাল-সবুজ পতাকা। আমাদের হৃদয়ে মিশে আছেন হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির জনক  বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান।

 

অসীম দাশগুপ্ত
সভাপতি
রাঙামাটি পার্বত্য জেলা শুভসংঘ

বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে লিখতে গেলে শেষ হবে না। আমার জীবনের পরতে পরতে রয়েছেন তিনি। তাঁকে নিয়ে যত পড়াশোনা করি ততই অবাক হই। তিনি জীবনের স্বর্ণযুগ কাটিয়েছেন অগণিত অসহায়-নিপীড়ত মানুষের পাশে থেকে। জাতির জনকের জন্মশতবার্ষিকী পালনের এই মাহেন্দ্রক্ষণে তাঁর জীবনী নতুন করে চর্চার সময় এসেছে। সময় এসেছে ইতিহাসের উজ্জ্বল মহিমা থেকে নতুন প্রজন্মের শিক্ষা নেওয়ার। জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু।

 

তাকবীর হোসেন মান্না
সাধারণ সম্পাদক
মৌলভীবাজার জেলা শাখা

হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি, স্বাধীন বাংলাদেশের স্থপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান তরুণদের জন্য সব সময়ই আইকন। বঙ্গবন্ধুর দেশপ্রেম আমাদের জন্য অনুসরণীয়। তাঁকে অনুসরণ করতে পারলে বিশ্বে আমরা মাথা উঁচু করে দাঁড়াবই। ছোটবেলা থেকেই বঙ্গবন্ধুকে জানার খুব ইচ্ছা ছিল। যখনই তাঁকে নিয়ে কোনো বই বা কবিতা বের হতো সবার আগে সেটা সংগ্রহ করতাম। যত দিন পৃথিবী বেঁচে থাকবে, মানুষ বেঁচে থাকবে তত দিন বঙ্গবন্ধু অমর হয়ে থাকবেন।

 

আবুল বাশার মিরাজ
বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় শাখা

ধান, গম ও ভুট্টা চাষে বিশ্বের গড় উৎপাদনকে পেছনে ফেলে এগিয়ে চলেছে বাংলাদেশ। বর্তমানে বিশ্বে শস্যের জাত উদ্ভাবন ও ইলিশ উৎপাদনে প্রথম, মাছে দ্বিতীয়, পাটে তৃতীয়, ধানে চতুর্থ, সবজিতে পঞ্চম, আলুতে ষষ্ঠ অবস্থান বাংলাদেশের। কৃষির এ সাফল্য এমনি এমনি আসেনি। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের যুগান্তকারী সিদ্ধান্তেই কৃষিতে অবারিত সাফল্য এসেছে। জাতির জনকের ঘোষণার মাধ্যমেই কৃষিবিদদের প্রথম শ্রেণির পদমর্যাদা ও কৃষির নতুন সূর্য উদিত হয়েছিল। কৃষিবিদদের গবেষণা ও উদ্ভাবনের কারণেই দেশ আজ খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ।

 

হাছিবুল বাসার মানিক
সদস্য
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শুভসংঘ

হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি, বাংলাদেশ নামক রাষ্ট্রের স্রষ্টা, মুক্তিযুদ্ধের মহানায়ক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান তরুণ প্রজন্মের কাছে মহান আদর্শ ব্যক্তিত্ব। তিনি তারুণ্যের চোখে অপ্রতিরোধ্য শক্তি ও অনুপ্রেরণার বাতিঘর। অমিত আত্মবিশ্বাস, রাজনৈতিক প্রজ্ঞা, প্রগতিশীল নেতৃত্ব, লালিত স্বপ্নের প্রতি অবিচল আস্থা বঙ্গবন্ধু তরুণ প্রজন্মের ভাবনায় অবিসংবাদিত এক নেতা। তরুণদের কাছে বঙ্গবন্ধু একাধারে জীবনসংগ্রামের, অন্যায়ের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের প্রতীক। তাঁর সংগ্রামমুখর কর্মময় জীবন ও আদর্শ থেকে শিক্ষা নেয় তরুণসমাজ।

 

সুুস্ময় দাস
সাধারণ সম্পাদক
নাটোর জেলা শুভসংঘ

সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান যেমন ইতিহাসের মহানায়ক ঠিক তেমনি প্রত্যেক তরুণের স্বপ্নপুরুষ, তারুণ্যশক্তি, আদর্শ ও অনুপ্রেরণা। তাঁর ত্যাগ, আদর্শ, সততা, সাংগঠনিক দক্ষতা, ব্যক্তিত্বের মোহনীয়তা এতটাই জনপ্রিয় ছিল, ৭ই মার্চের ভাষণ লাখ লাখ বাঙালিকে মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করতে উজ্জীবিত করেছিল। জন্ম থেকে শুরু করে মহান মুক্তিযুদ্ধ, বঙ্গবন্ধুর জীবনের প্রতিটা ঘটনা তরুণদের জন্য অনুকরণীয়। এ যেন এক মহামানবের জীবনের মহাকাব্য।

 

মারসিফুল আলম রিমন
পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়

ওরা ভেবেছিল ব্যক্তি মুজিবকে গণমানুষের কাছ থেকে আলাদা করলেই নিভে যাবে বাংলার মানুষের স্বাধীনতার প্রদীপ। ওরা বোঝেনি বাংলাদেশের প্রতিটি প্রাণ বুকে ধারণ করে বঙ্গবন্ধুর আদর্শ, যে আদর্শ ৫৬ হাজার বর্গমাইলকে আগলে রেখেছিল বটবৃক্ষের মতো। যে বুকে একদিন গড়ে উঠেছিল বাংলার মানচিত্র, সে বুকেই বুলেটের আঘাতে অঙ্কিত হলো রক্তের চিত্রকর্ম। ঘাতকরা সেদিন বোঝেনি ব্যক্তি মুজিবের মৃত্যু হলেও ‘বঙ্গবন্ধু’ নামক আদর্শের মৃত্যু হয় না।

 

মিম খান
অর্থ সম্পাদক 
গণ বিশ্ববিদ্যালয় শাখা

বজ্রকণ্ঠের ধ্বনিতে যিনি চারদিক প্রকম্পিত করে তুলতেন, জনগণের আশা-ভরসার প্রতীক ছিলেন তিনিই বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান।

বাঙালি জাতির লড়াই, সংগ্রাম ও মুক্তির দিশারি এই মহান নেতার জন্ম বাংলাদেশের জন্য আশীর্বাদ। অন্যায়, অত্যাচার, জুলুম, লুণ্ঠনের বিরুদ্ধে তরুণরা কিভাবে তাদের হাত বলিষ্ঠ রাখতে পারবে তা শিখিয়ে গেছেন তিনি। তাঁর দেখানো পথ, স্বপ্ন ও ধ্রুবতারার মতো উজ্জ্বল আদর্শ যুগ যুগ ধরে প্রজন্ম থেকে প্রজন্মে বয়ে যাবে।

 

 

সুরাইয়া মীম

সাধারণ সম্পাদক, নর্দান ইউনিভার্সিটি অব বিজনেস অ্যান্ড টেকনোলজি শাখা

তরুণ প্রজন্মের কাছে মহাপুরুষ বঙ্গবন্ধু। তাঁর রাজনীতি ছিল অসহায় মানুষের পাশে থাকা। আজকের তরুণসমাজ আগামী দিনের বাংলাদেশ বিনির্মাণে তাঁর আদর্শ লালন করছে। জাতির জনকের হার না মানা সংগ্রামমুখর জীবন নির্দিষ্ট গণ্ডির মধ্যে আবদ্ধ রাখার অবকাশ নেই। তিনি শুধু বাঙালির নেতা নন, তিনি ছিলেন বিশ্বনেতা। বঙ্গবন্ধুর কর্মময় জীবন ও আদর্শ থেকে শিক্ষা নিয়ে এগিয়ে যাক বাংলাদেশ।

 

শামস্ জেবিন
সভাপতি, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়

বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন ছিল সোনার বাংলাদেশ গড়ার। আর সেই স্বপ্ন বাস্তবায়নে এক পতাকাতলে জড়ো হয়েছে তরুণরা। আগামী দিনে বঙ্গবন্ধুর আদর্শ বুকে ধারণ করে দেশকে এগিয়ে নেবে তরুণরাই। জাতির জনকের হাতে গড়া এই স্বাধীন দেশকে সামনে এগিয়ে নিয়ে যেতে হলে তরুণদের কাজ করতে হবে নিরলসভাবে। এটাই হোক আমাদের স্বপ্ন, আমাদের সংগ্রাম।

 

মো. মিন্টু মিয়া
সাংগঠনিক সম্পাদক
রংপুর সরকারি কলেজ শাখা

যে মানুষটির জন্ম না হলে বাঙালিরা বিশ্বদরবারে মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে পারত না, সেই মানুষটি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। ব্রিটিশবিরোধী আন্দোলন, মাতৃভাষা আন্দোলন, স্বাধিকার আন্দোলন, ৭ই মার্চের ভাষণ, ২৬শে মার্চের প্রথম প্রহরে স্বাধীনতার ঘোষণা, মহান মুক্তিযুদ্ধ—সব কিছু সম্ভব হয়েছে বঙ্গবন্ধুর জন্য। নতুন প্রজন্মের কাছে বঙ্গবন্ধু এক আদর্শের নাম। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন বাস্তবায়নে সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে।

 

শাকিল আহমেদ শুভ
সাধারণ সম্পাদক
বেলকুচি উপজেলা শুভসংঘ

বঙ্গবন্ধু নামের সঙ্গে মিশে আছে বাঙালির ইতিহাস। জাতির জনক শেখ মুজিবুর রহমানের বলিষ্ঠ নেতৃত্বে বিশ্ব মানচিত্রে বাংলাদেশ নামের স্বাধীন দেশের অভ্যুদয়। রাজনৈতিক আদর্শ, মেধা-মনন, প্রজ্ঞা, বিচক্ষণতা দিয়ে তিনি জয় করেছেন সব কিছু।আমরা তো এমন মানুষই চাই, যাঁদের ছোঁয়ায় বদলে যাবে বাংলাদেশ। বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলার সোনালি সূর্যোদয়ের অপেক্ষায় আমরা সবাই।

 

জাকারিয়া জামান 
১৬ আগস্ট ২০২০ লিংক

আরও পড়ুন